Corrado Barazzutti: italy non-playing captain corrado barazzutti slams new davis cup format – ডেভিস কাপের নতুন নিয়মকে তুলোধনা ইতালি ক্যাপ্টেনের

এই সময়: মাত্তেও বেরেত্তিনির লাফিয়ে উঠে মারা ফোরহ্যান্ড আছড়ে পড়ল পিছনের দেওয়ালে। শহরের নামী টেনিস কোচ গ্যারি ও’ব্রায়েনও দাঁড়িয়ে দেখছিলেন ডেভিস কাপের সবুজ মখমলের মতো গালিচায় ইতালি টিমের প্র্যাক্টিস। শটটা দেখে চলে যাওয়ার সময় বলে গেলেন, ‘ইতালিয়ানরা কিন্তু টেকনিকের ব্যাপারে দারুণ শক্তিশালী।’

বেরেত্তিনির ওই একটা ফোরহ্যান্ড তো নয়, তার আগে প্র্যাক্টিস কোর্টের পাশে দাঁড়িয়ে থাকা সবাই দেখেছেন আন্দ্রেয়াস সেপ্পি এবং মার্কো চেচ্চিনাতোর মধ্যে ভলি প্র্যাক্টিস। চেচ্চিনাতোকে যতই ক্লে-কোর্ট বিশেষজ্ঞ বলা হোক, র‍্যাঙ্ক তো আসলে ১৯। সোমবার এটিপির যে র‍্যাঙ্কিং প্রকাশিত হয়েছে তাতে এক ধাপ পিছিয়েছেন চেচ্চিনাতো। সেপ্পি দু’ধাপ পিছিয়ে ৩৭ নম্বরে। বেরেত্তিনি এক ধাপ উঠে ৫৪-তে। তাই, সার্ভিস বা রিটার্নের টেকনিকে ভারতীয়দের থেকে এগিয়ে থাকবেন তাঁরাই। ভারতীয় টিমের মধ্যে র‍্যাঙ্কিংয়ে সবচেয়ে এগিয়ে প্রজ্ঞেশ গুণেশ্বরন। সোমবার সাত ধাপ উঠে পৌঁছেছেন ১০২ র‍্যাঙ্কে। আর রামকুমারের বর্তমান র‍্যাঙ্ক ১৩৩।

মোদ্দা কথা, ঘাসের কোর্টে কতটা লড়াই রামকুমার-গুণেশ্বরনরা করতে পারবেন, তার উপরই নির্ভর করছে এই টাইয়ের ভাগ্য। তাই, ঘাসের কোর্টে বেশি সময় প্র্যাক্টিস করতে চেয়েছে ইতালি টিম। সোমবারই তারা চেয়েছিল। কিন্তু সকাল সাড়ে দশটা থেকে ভারতীয় টিমের প্র্যাক্টিস থাকায় তা সম্ভব হয়নি। ইতালি প্র্যাক্টিস করেছিল দুপুর একটা থেকে। মঙ্গলবার ইতালিও প্র্যাক্টিস শুরু করছে সকাল সাড়ে দশটাতেই।

নন-প্লেয়িং ক্যাপ্টেন কোরাদো বারাজ্জুত্তি নিজের টিমকে তৈরি করছেন শুক্র-শনিবারের টাইয়ের জন্য। কিন্তু তাঁকে ক্ষুব্ধ দেখাল ডেভিস কাপের নতুন ফর্ম্যাট নিয়ে কথা বলতে গিয়ে। তিন দিনের বদলে দু’দিনের টাই। আর ম্যাচগুলি পাঁচ সেটের বদলে তিন সেটের। সোমবার বিকেলে সাউথ ক্লাবে বসে বারাজ্জুত্তির মন্তব্য, ‘এই ফর্ম্যাটটা নতুন। আগে যে ফর্ম্যাটে খেলা হত, তখন আমি খেলতাম। ইতালির হয়ে খেলে আমি ডেভিস কাপ চ্যাম্পিয়নও হয়েছি। আমার পুরোনো ফর্ম্যাটই পছন্দের ছিল।’ জুড়ে দেন, ‘আইটিএফ থেকে এই ফর্ম্যাট তৈরি করা হয়েছে। এখন এই ফর্ম্যাটেই খেলতে হবে।’

বারাজ্জুত্তির বক্তব্য, ‘আগের পাঁচ সেটের ফর্ম্যাটই সেরা ছিল। গ্র্যান্ড স্লামের নিয়ম পাল্টে দেওয়ার মতো। যদি গ্র্যান্ড স্লামের ম্যাচ তিন সেটের হয়ে যায়, আপনারা দেখবেন কি? সব কিছুই পাল্টে যাচ্ছে। আর খুব দ্রুত পাল্টাচ্ছে। আর এখানে অর্থও একটা ফ্যাক্টর। অনেক কিছুই পাল্টে যাচ্ছে অর্থের জন্য।’ তাঁর সংযোজন, ‘কিন্তু বড় প্লেয়াররা অর্থের জন্য খেলে না। আমার মনে হয় না ফেডেরার উইম্বলডনে, নাদাল রোলাঁ গারোয় অথবা জকোভিচ ফ্লাশিং মিডোয় খেলে অর্থের জন্য।’

শুধু ফর্ম্যাট নয়, বারাজ্জুত্তি অসন্তুষ্ট ওয়ার্ল্ড গ্রুপের ম্যাচগুলো হোম-অ্যাওয়ের পরিবর্তে এক শহরে করা নিয়ে। ওয়ার্ল্ড গ্রুপ নামটাও বদলে গিয়েছে। এ বার থেকে বলা হবে ডেভিস কাপ ফাইনালস। যেখানে শুরুতে রাউন্ড রবিন লিগে খেলবে ১৮টি টিম। এ বার ডেভিস কাপ ফাইনালস হবে মাদ্রিদে, নভেম্বরে। ভারত ও ইতালির মধ্যে যে টিম জিতবে, তারাই মাদ্রিদে খেলবে। ইতালির নন-প্লেয়িং ক্যাপ্টেনের কথায়, ‘জানি না এটা কী রকম। আমি নিজেকে অন্য যুগের মনে করছি এখন।’

তার মধ্যেই প্রস্তুতি চলছে ঘাসের কোর্টে খেলার। বলছিলেন, ‘এখন তো ঘাসের কোর্টে খেলা হয় উইম্বলডনের আগে কয়েকটা টুর্নামেন্টে। শুধু আমরা কেন ভারতীয়রাও তো বেশি খেলে না ঘাসের কোর্টে।’ তবে বোপান্না-রামকুমারদের নিয়ে বেশ সতর্ক। ‘ভারত হোম গ্রাউন্ডে খেলবে। ঘাসের কোর্টে। আর ডেভিস কাপে র‍্যাঙ্কিং কখনওই বড় ব্যাপার নয়। অনেকেই টুর্নামেন্টে এক রকম খেলে, আবার ডেভিসে আর এক রকম। তাই এই টাই বেশ কঠিন হতে চলেছে।’

ইংরেজিতে পড়ুন




Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

শিক্ষক দিবস রচনা – Teachers Day

শিক্ষক দিবস রচনা – Teachers Day – Chalo Kolkata ...